জামিনের শুনানি পিছিয়ে গেল বিমল গুরুং ও রোশন গিরির।

জলপাইগুড়ি,১৯ আগস্ট ঃ- জামিনের আবেদন না মঞ্জুর হলো বিমল গুরুং এবং রোশন গিড়ির। সোমবার কোলকাতা হাই কোর্টের জলপাইগুড়ি সার্কিট বেঞ্চে বিমল গুরুং ও রোশন গিড়ির এই মামলার শুনানি হয়। বিচারপতি জয়মাল্য বাগচি ও মনোজিৎ মন্ডলের ডিভিশন বেঞ্চে এদিন এই মামলার শুনানি হয়। মামলার শুরুতেই সরাকার পক্ষের আইনজীবীরা এই শুনানি পিছিয়ে দেওয়ার আবেদন জানালে বিচারপতি তা খারিজ করেন। পরে দু পক্ষের বক্তব্য শুনে আগামী বৃহস্পতিবারের মধ্যে দু পক্ষকেই অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলার স্ট্যাটাস রিপোর্ট দেওয়ার নির্দেশ দেন। দু পক্ষের রিপোর্ট দেখার পর বিচারপতিরা মামলার শুনানির দিন ধার্য্য করবেন। তবে এর মাঝে শুনানি শুরু হবার আগে পর্যন্ত বিমল গুরুং এবং রোশন গিড়ি কে গ্রেফতার না করার আবেদন জানান। বিচারক সেই আবেদন খারিজ করে দেন। অন্যদিকে একই মামলায় আরেক অভিযুক্ত শংকর অধিকারী কে সাত দিনের জন্য গ্রেফতার না করার নির্দেশ দেন বিচারপতি দ্বয়।

এদিন আদালতে দু পক্ষের মধ্যে বেশ কিছুক্ষণ সাওয়াল জবাব হয়। সেখানে সরকারের পক্ষ থেকে অভিযোগ আনা হয়, বিমল গুরুং এবং রোশন গিড়িরা, এমন কিছু মামলায় অভিযোগে অভিযুক্ত যে তাদের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার নির্দেশ দিয়েছে নিম্ন আদালত। এবং আরো কিছু সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার কাজ চলছে। ফলে তার জামিনের আবেদন খারিজ করা হোক। বিচারক এই আবেদন মঞ্জুর করেন। তবে আগামী বৃহস্পতিবার সব মামলার স্ট্যাটাস রিপোর্ট দেওয়ার নির্দেশ দেওয়ার পাশাপাশি আগামী সপ্তাহে এই মামলার শুনানি হবে বলেও নির্দেশ দেন।

তবে বৃহস্পতিবার ও বেশ কিছু মামলার শুনানি হবে বলেও দু পক্ষকেই জানিয়ে দেন বিচারপতি দ্বয়। এবং ওই শুনানিতে রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেলারেলকে উপস্থিত থাকার নির্দেশ দেন বিচারপতি দ্বয়।এদিন সরকার পক্ষের হয়ে অতিরিক্ত অভিসংসক অদিতি শংকর চক্রবর্তী এবং সৈকত চাটার্জী সাওয়াল করেন৷ অদিতি বাবু জানান, যেহেতু এই মামলার আগাম জামিনের জন্য নির্দিষ্ট সময় ধার্য্য করে দিয়েছিলো, সেই নির্দিষ্ট সময়ে তারা জামিনের আবেদন করতে পারেন নি। এছাড়া তার সম্পত্তি যেহেতু ক্রোক করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে সেই কারনে তিনি জামিনের আবেদন করতেই পারেন না। বিমল গুরুংয়ের জামিন পাওয়া নিয়েও তিনি সংসয় প্রকাশ করেন।

জলপাইগুড়ি

Spread the love

 

Related Post

Leave a Comment